০৪ জুলাই ২০২০ ইং, ১৯ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম:
নরসিংদীর শিবপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফাইজ উদ্দিন মাষ্টারের দাফন,রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সম্পন্ন, নরসিংদীতে গণপরিবহনে যাত্রী সেবা তদারকি অব্যাহত রেখেছে জেলা পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে কলেজ ছাত্রকে মারধোর যশোরের শার্শায় ইঞ্জিন চালিত ভ্যানের ধাক্কায় শিশুর মৃত্যু বেনাপোল বাহাদুরপুর সীমান্ত থেকে গুলিবিদ্ধ এক যুবকের লাশ উদ্ধার

আবারো শতভাগ সাফল্য নিয়ে এসএসসিতে নরসিংদীর এনকেএম হাইস্কুল দেশ সেরা

  নরসিংদীর সংবাদ

নিজস্ব প্রতিনিধি/ মোস্তাক আহমেদ

আবারো এসএসসিতে সেরা ফলাফল অর্জন করেছে নরসিংদীর এনকেএম হাইস্কুল অ্যান্ড হোমস্। চলতি বছর ২০২০ সালে , ২১৪ জন শিক্ষার্থী পরিক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ১৯৯ জন শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পেয়েছে। যা জিপিএ ৫ এর শতকরা গড় ৯৩%।আজ রবিবার (৩১ মে) অনলাইনে এসএসসির ফলাফল ঘোষণার পর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো:শাহজাহান। প্রতিষ্ঠানটির ধারাবাহিক সাফল্যে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা আবদুল কাদির মোল্লা ও মিসেস নাসিমা মোল্লা।

বিদ্যালয়ের প্রশাসনিক বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এনকেএম হাইস্কুল অ্যান্ড হোমস ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে পিইসি, জেএসসি ও এসএসসিতে টানা শতভাগ পাসসহ ফলাফলের ভিত্তিতে প্রায় প্রতিবছরই বোর্ডে স্থান দখল করে নিয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার এসএসসি পরীক্ষায় ২১৪ জন পরিক্ষার্থী অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ১৯৯ জন শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পেয়েছে। এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ২০৫ শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে ১৯৪ জন জিপিএ ৫ পেয়েছে আর বাণিজ্য বিভাগ থেকে ৯ জন অংশ নিয়ে ৫ জন জিপিএ ৫ পেয়েছে। এনিয়ে জিপিএ ৫ এর শতকরা গড় ৯৩%। বাকি সবাই এ গ্রেডে উত্তীর্ণ হয়েছে।

এর আগে গত ২০১৯ সালে ১৭১ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ১৬৮ জন জিপিএ ৫ পেয়েছিল। ২০১৮ সালে ১৩৯ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ১৩৭ জন জিপিএ ৫ পেয়েছিল। ২০১৭ সালের এসএসসি পরিক্ষায় ১৬৪ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে সবাই জিপিএ ৫ পেয়েছিল। ২০১৬ সালেও ১০৪ জন পরিক্ষার্থী অংশ নিয়ে ১০৩ জন জিপিএ ৫ পেয়েছিল। আর ২০১৫ সালে ৫৪ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে সবাই জিপিএ ৫ পেয়ে ঢাকা বোর্ডে ১০ স্থান অর্জন করেছিল জেলার এই স্কুলটি।

বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ ৫ পাওয়া রুহুল ইরফান মুঠোফোনে জানায়, ‘শিক্ষকদের অক্লান্ত পরিশ্রম, সঠিক দিক-নির্দেশনা, নিয়মিত ক্লাস, বিশেষ ক্লাস, হোম ভিজিট, টিউটোরিয়াল ও মাসিক পরিক্ষার কারণেই এই ভাল ফলাফল সম্ভব হয়েছে।’

এনকেএম হাইস্কুল অ্যান্ড হোমসের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও থার্মেক্স গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল কাদির মোল্লা বলেন, এনকেএম স্কুলের ফলাফল বরাবরই ভাল করছে। সারাদেশের সার্বিক ফলাফল বিশ্লেষণ করলে আশা করছি আমরা দেশসেরা অবস্থানে থাকব। মূলত নরসিংদীর মত মফস্বল শহরে মানসম্মত শিক্ষা প্রদানের অঙ্গীকার নিয়েই আমি ও আমার সহধর্মিনী নাসিমা মোল্লা স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করেছিলাম। আমি সবসময় চেয়েছি সুশিক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা মানব সম্পদে পরিণত হউক। যাতে আমাদের সমাজে সার্টিফিকেটধারী শিক্ষিত বেকার তৈরী না হয়।
তিনি আরও বলেন, আজকের এই সাফল্য শুধু এই প্রতিষ্ঠানের একার না। এই সাফল্য পুরো নরসিংদীবাসীর। এরই লক্ষ্যে আমার পরিচালনাধীন মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশন শুধু আমাদের পরিচালনাধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নয়, জেলার প্রায় ৩১৫ টি স্কুল ও কলেজে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করনে সাধ্যমত কাজ করে যাচ্ছি।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. শাহজাহান বলেন, ‘একটি বিদ্যালয়ের ভাল ফলাফলের মূল মন্ত্র হচ্ছে বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে সমন্বয়। আর আমাদের মূলমন্ত্র হচ্ছে আবদুল কাদির মোল্লা। স্যারের সার্বক্ষণিক দিক নির্দেশনায় আমাদের এই ফলাফল অব্যাহত আছে।

উল্লেখ্য, নরসিংদীতে মানসম্মত শিক্ষাদানের অঙ্গীকার নিয়ে ২০০৮ সালে শহরের ভেলানগর এলাকায় থার্মেক্স গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, আবদুল কাদির মোল্লা নরসিংদীতে তাঁর এবং তাঁর স্ত্রী মিসেস নাসিমা মোল্লার নামে যৌথভাবে এনকেএম হাইস্কুল অ্যান্ড হোমস প্রতিষ্ঠা করেন। বর্তমানে ৮৭ জন শিক্ষক-শিক্ষিকার সার্বিক তত্ত্বাবধানে স্কুলটি কঠোর শৃঙ্খলার মধ্যে দিয়ে পরিচালিত হয়ে আসছে। বর্তমানে স্কুলটির শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ হাজার ৫০০ জন ।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে