২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ইং, ১১ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম:
চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জাহিদ সরকারের ব্যাপক গণসংযোগ সুবর্ণচর ও হাতিয়ার ইউপি নির্বাচনে ৯ ইউনিয়নে আ.লীগ প্রার্থী,৪টিতে বিদ্রোহী প্রার্থীর জয় মাধবদীতে গৃহহীন প্রকল্পে বৃক্ষ রোপন করলেন নরসিংদী পুলিশ সুপার নোয়াখালী সদরে আ.লীগের দু’গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, অস্ত্রধারীদের ভিডিও ভাইরাল সুবর্ণচরে জেলা আ.লীগ কমিটি পুনর্বহালের দাবীতে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ

২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার খুনিদের ফাঁসি কার্যকর করার দাবি করছি –হারুনুর রশীদ খান

  নরসিংদীর সংবাদ

স্বপন খানঃ শিবপুর প্রতিনিধি/

জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রাণনাশের অপচেষ্টায় ২১ আগষ্ট জঙ্গিবাদী গ্রেনেড হামলায় বেগম আইভী রহমানসহ শহীদ ২৪ নেতাকর্মী স্মরণে নরসিংদীর শিবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।শনিবার (২১ আগষ্ট) বিকেল ৩ টায় উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে এ কর্মসূচী পালিত হয়।
শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব হারুনুর রশীদ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নরসিংদী ৩ শিবপুরের মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জহিরুল হক ভূইয়া মোহন। এসময় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব সামসুল আলম ভূইয়া,এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মোহাসিন নাজির ও আলমগীর হোসেন আঙ্গুল, আজিজুল রহমান খান ভুলু, সাংগঠনিক সম্পাদক বিপ্লব চক্রবর্তী, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, প্রচার সম্পাদক ফজলে রাব্বি খান,কার্যকরি সদস্য জাহিদুল হক দিপু, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি খোকন ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক ফারুক খান, উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফাজায়েল ভূইয়া, শিবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব হারুনুর রশীদ খান সভায় বলেন, পঁচাত্তরের ১৫ আগষ্ট ও ২০০৪ সালের ২১ আগষ্টের হামলাকারীরা এক ও অভিন্ন শক্তি। তাদের মূল লক্ষ্য বাংলাদেশকে পাকিস্তানের ধারায় ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া। এদের মূল লক্ষ্য দেশের স্বাধীনতা হত্যা,গণতন্ত্র হত্যা করা।১৬ বছর অতিবাহিত হলেও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ভয়াবহ স্মৃতি জাতি আজও ভুলতে পারেনি। ভয়াল সেই হামলায় আওয়ামী লীগের ২৪ নেতাকর্মী নিহত হন, আহত হন পাঁচ শতাধিকেরও বেশি লোকজন। আহতদের অনেকেই এখনো তাদের শরীরে গ্রেনেডের স্প্লিন্টার আর দুঃসহ স্মৃতি বয়ে বেড়াচ্ছেন।তিনি আরো বলেন, সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা চালিয়ে সেদিন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা চেষ্টাসহ আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল।এই হামলার পেছনে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক জিয়ার প্রত্যক্ষ মদদ রয়েছে।তার হাওয়া ভবন থেকেই এই হামলার পরিকল্পনা করা হয়।সৌভাগ্যবশতঃ সেদিন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে যান। আমরা ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার সঙ্গে জড়িত সব খুনিদের অবিলম্বে ফাঁসি কার্যকর করার দাবি করছি। আওয়ামীলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মী ও অংগ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।অনুষ্ঠান শেষ ভাগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মার মাগফিরাত এবং দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করে দোয়া করা হয়।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে